জুন ২৩, ২০২৪ ৮:২২ পিএম

জীবনসঙ্গীর যে ৫ কাজে নারীর মন ভেঙে যায়

ভালোবাসার মানুষটির ভেতরে এমনকিছু নিশ্চয়ই থাকে, যে কারণে সে ‌‘ভালোবাসার মানুষ’ হয়ে ওঠে। কিন্তু এই ভালোবাসাই একটা সময় মিলিয়ে যেতে শুরু করে কেন? তা কি কেবল অপরপক্ষের মুগ্ধতার ঘোর কেটে যায় বলেই? যার প্রতি বিতৃষ্ণা চলে আসে, দায় কি তারও কিছুটা থাকে না? কে বেশি অপরাধী, সেই হিসাব কষেই বা লাভ কী যখন সম্পর্কটাই নাই হয়ে যায়!

ভালোবাসার মানুষটিকে ধরে রাখতে চাইলে কিছু বিষয়ে উদাসীন হওয়া চলবে না। কিছু আচরণের বিষয়ে হতে হবে সচেতন। পুরুষেরা হয়তো না বুঝেই এমন কিছু আচরণ করে যে কারণে মেয়েরা তাদের ছেড়ে চলে যায়। কারণ নারীর হৃদয়ভর্তি যেমন ভালোবাসা থাকে তেমনই তা উল্টে গিয়ে ঘৃণায় পরিণত হতে সময় লাগে না। চলুন জেনে নেওয়া যাক কী কারণে নারীর মন ভেঙে যেতে পারে-

গুরুত্ব না দিলে

ভালোবাসার শুরুর দিনগুলোতে যেভাবে ভালোবাসাটা প্রকাশ হয়, সব সময় যে তেমনই গতিশীল থাকবে তেমনটা আশা করা বোকামি। তাই বলে যে দিনে দিনে একেবারেই গুরুত্বহীন হয়ে যাবে, বিষয়টি এমনও নয়। সম্পর্কের শুরুর দিকটা মনে করে দেখুন। তার প্রতি আপনার টান কতটা অবশিষ্ট আছে চিন্তা করে দেখুন। আপনার অবহেলায়, ছোট ছোট আচরণে একদিন সেও মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে, এটা মনে রাখা জরুরি।

অনুভূতিকে সম্মান না দিলে

প্রত্যেক মানুষই আলাদা নিজ নিজ চিন্তা ও অনুভূতির কারণে। আপনি যদি মনে করেন কেবল আপনিই ঠিক আর বাকি সব ভুল, তাহলে আপনি নিজেই ভুল। কারণ নিজের পাশাপাশি অন্যের অনুভূতিকেও সম্মান জানাতে পারাটাই স্মার্টনেস। যখন আপনি কেবল নিজের মতামত চাপিয়ে দেবেন এবং তার অনুভূতিকে অসম্মান করবেন, জেনে রাখুন, সেই সম্পর্ক ভাঙবেই। কারণ নিজের অনুভূতির অসম্মান সবাই সহ্য করে নিতে পারে না।

অনধিকারচর্চা করলে

ভালোবাসলে অধিকার তো জন্ম নেয়ই। কিন্তু আপনাকে জানতে হবে আপনার সীমা কতটুকু। কোনটা আপনার অধিকার আর কোনটা অনধিকারচর্চা তা জানা জরুরি। হয়তো সে মুখ ফুটে আপনার ভুলটি ধরিয়ে দিচ্ছে না কিন্তু তার বিরক্তিটুকু বোঝার চেষ্টা করুন। কারও বিরক্তির কারণ হওয়া কোনো কাজের কথা নয়। এমনভাবে চলুন যেন আপনার অধিকারের মাত্রা অতিক্রম না করে।

কঠোর ব্যবহার করলে

পুরুষেরা স্বভাবগতভাবেই নারীর মতো কোমল নয়। কিছুটা কাঠিন্য যেন তাদের জন্মগত বৈশিষ্ট্য। তাই বলে নিজের সঙ্গীর সঙ্গেও কঠোর ব্যবহার করবেন, এমনটা ভাবা সমীচীন নয়। বেশিরভাগ নারীই তাদের ভালোবাসার মানুষটির থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয় কেবল এই কঠোর ব্যবহারের কারণে। রেগে গিয়ে তারা এমন রূঢ় ব্যবহার করে যে পরবর্তীতে ক্ষমা চাওয়ার মুখও থাকে না। তাই সঙ্গীর প্রতি কঠোর নয়, সহানুভূতিশীল হোন।

আবেগহীনতার কারণে

কিছু পুরুষ থাকে যারা ভালোবাসার সম্পর্কে থাকলেও আবেগের দেখা সেখানে মেলে না। এদিকে জানেন তো, আবেগ ছাড়া ভালোবাসার অস্তিত্ব প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যায়। ভালোবাসা এত বেশি হিসাব-নিকাশ করে হয় না। তাই ভালোবাসলে কিছু আবেগ প্রকাশও করতে শিখুন। নয়তো আপনার ভালোবাসার মানুষটির মন কখন ভেঙে যাবে, টেরও পাবেন না।

এনসিএন/এসকে

Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print