জুন ২৩, ২০২৪ ৮:৩২ পিএম

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন:

বিএনপির দুই নেতাকে শোকজ; এক নেত্রীকে বহিস্কার

নওগাঁর পোরশা উপজেলা পরিষদ ২য় ধাপের নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে ঘোড়া মার্কার প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় অংশগ্রহণ করায় বিএনপির দুই নেতাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করা হয়েছে।

ঘোড়া মার্কা নিয়ে নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন মোল্লা। আর যাদেরকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে তারা হলেন, মুরশিদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি শওকত আলী এবং একই ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম। এছাড়া একই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অংশগ্রহণ করায় মমতাজ বেগমকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। মমতাজ বেগম পোরশা উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান এবং উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ন আহবায়ক ও নওগাঁ জেলা মহিলা দলের সহ-সভাপতি।

রবিবার (৫ মে) নওগাঁ জেলা বিএনপির সদস্য সচিব বায়েজিদ হোসেন পলাশের দলীয় প্যাডে স্বাক্ষরিত পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে তাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

এর আগে গত শনিবার (৪ মে) বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ন মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভীর দলীয় প্যাডে স্বাক্ষরিত মমতাজ বেগমকে বহিস্কার করা হয়।

বহিস্কার আদেশে বলা হয়, দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে আসন্ন পোরশা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে দলীয় গঠনতন্ত্র মোতাবেক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে মমতাজ বেগমকে নির্দেশক্রমে বহিস্কার করা হলো।

পলাশের স্বাক্ষরিত নোটিশে উল্লেখ করা হয়, গত ২৬ এপ্রিল শিশা বাজারে অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নুরুল ইসলাম একজন প্রার্থীর নির্বাচনী সভায় যোগদান করে বক্তব্য প্রদান করেছেন। যা সংগঠনের সিদ্ধান্তের পরিপন্থী ও দলের প্রতি চরম বিশ্বাসঘাতকতার সমিল। সুতরাং দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করার জন্য কেন আপনার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না তা পত্রের উল্লেখিত তারিখের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নওগাঁ জেলা বিএনপির আহবায়ক ও সদস্য সচিব বরাবর লিখিতভাবে জানানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো ৷ একইভাবে সহ-সভাপতি শওকত আলী নির্বাচনী প্রচারণায় যোগদান করায় একই নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

নোটিশ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বায়েজিদ হোসেন পলাশ। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ঘোড়া মার্কার আওয়ামীলীগের প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণায় আমাদের দলের একজন বক্তব্য রেখেছিলেন, আরেকজন উপস্থিত ছিলেন। তাই তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া কেন্দ্র থেকে মমতাজ বেগমকে বহিস্কারের বিষয়টিও এই প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেন তিনি।

জানতে চাইলে মুরশিদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম মুঠোফোনে এই প্রতিবেদককে বলেন, ওটা আমার নিজস্ব ইউনিয়ন। আমি একটি চায়ের দোকানে বসে ছিলাম। হঠাৎ করে আওয়ামীলীগের প্রার্থী চলে আসে সেখানে। আমার সাথে করমর্দন করে আমাকে স্কুলের একটি রুমে নিয়ে যায়। সেখানে কিছু বুজে উঠার আগেই আমাকে কিছু বলার জন্য বলা হয়। তারপরও আমি জেলা বিএনপির নান্নু ভাইয়ের সাথে কথা বলেছি। তিনি আমাকে উপজেলা সভাপতির সাথে কথা বলতে বলেন। তিনি একটু ক্ষোভ নিয়েই বলেন, আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি, এখানে আমাদের অনেক লোকজন সরাসরি কাজ না করলেও তারা নির্বাচনের কথা বলছে। আর আমি দল পাগল মানুষ। আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি, প্রথম সারিতে থেকে আমি ভোট বর্জনের লিফলেট বিতরণ করবো। তবে কারণ দর্শানোর নোটিশ হাতে পেলে অবশ্যই লিখিতভাবে জবাব দিবো।

ঘোড়া মার্কার প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণায় উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে মুরশিদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি শওকত আলী মুঠোফোনে এই প্রতিবেদককে বলেন, আকষ্মিকভাবে সেখানে উপস্থিত হতে হয়েছিল। তবে নোটিশ হাতে পেলে লিখিত জবাব দিবেন বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (২ মে) নওগাঁ জেলা ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক ফরহাদ হোসেনের দলীয় প্যাডে স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে দুই ছাত্রদল নেতাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। জেলার পত্নীতলা উপজেলা পরিষদ প্রথম ধাপের নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে ঘোড়া মার্কার প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক চৌধুরীর নির্বাচনী প্রচারণায় অংশগ্রহণ করায় ছাত্রদলের দুই নেতাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। শোকজ দুই ছাত্রদলের নেতা হলেন, নজিপুর পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আরিফ হোসেন সৌরভ ও নজিপুর সরকারি কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ন আহবায়ক আবু হোরাইরা বিল্লা।

Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print